Share

টপিক: হেকায়াতে ছাহাবা -প্রথম অধ্যায়-(পর্ব-১৫)

# আগের পর্ব
হযরত আমার (রাঃ) ও তাঁর মাতার করুণ কাহিনী
হযরত আম্মার (রাঃ) ও তাঁর পিতা মাতাকে যে অমানুষিক অত্যাচার ভোগ করতে হয়েছিল আজ শুনেন সেই করুণ কাহিনী ।
মক্কার উত্তপ্ত পাথরেরের ও মরুভুমির বালির উপর তাঁদের শুয়িয়ে ইসলাম গ্রহণের অপরাধে শাস্তি দেওয়া হতো ।ঐ পথ দিয়ে হুজুরে পাক (সাঃ) এর যাতায়াত হলে তাঁদেরকে ছবরের উপদেশ ও বেহেশতের সুসংবাদ দান করতেন । হযরত আম্মার (রাঃ)এর পিতা ইয়াছের (রাঃ) কাফেরদের এই অত্যাচারের ফেলে কয়েকদিনের ভেতর শেষ নিঃশ্বাস করেন এবং কাফেরগণ জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত তাঁকে একবারও স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলতে দেয়নি ।ইসলাম ও মুসলমানের শ্রেষ্ঠ দুশমন আবু জেহেল একদিন হযরত আম্মারের বৃদ্ধা ও দূর্বল মাতা হযরত সুমাইয়া (রাঃ) এর লজ্জাস্থানে এতো জুরে বর্শা নিক্ষেপ করেন যে তিনি সাথে সাথে তাঁর স্বামীর পদানুসারন করে শহীদ হয়ে যান ।
ইসলামের ইতিহাসে তিনিই প্রথম দ্বীনের পথে ধাবিত হয়ে শত্রুর হাতে শহীদ হবার সৌভাগ্য অর্জন করেন এবং ইসলামের মধ্যে সর্ব প্রথম হযরত আম্মার (রাঃ) ই মসজিদ নির্মাণ করেন ।

নবীয়ে করীম (সাঃ)যখন হিযরত করে মদীনা শরীফ তাশরীফ নিলেন তখন হযরত আম্মার (রাঃ) প্রস্তাব করলেন যে ,হুজুরে পাক (সাঃ) এর জন্য একটা গৃহ নির্মাণ করা উচিৎ ,যেখানে তিনি তাশরীফ রাখবেন ,দুপুর বেলা আরাম করবেন এবং ছায়ার মধ্যে নামাজ আদায় করতে পারবেন ।
এরপর তিনি কোবা নামক স্থানে পাথর সংগ্রহ করে একটি মসজিদ নির্মাণ করেন ।

চলবে ...

দেশান্তরী..

জবাব: হেকায়াতে ছাহাবা -প্রথম অধ্যায়-(পর্ব-১৫)

চালিয়ে যান ।সম্মাননা রইল আপনার জন্য ।

ফোরামে আছি ।