টপিক: ইসলামের দৃষ্টিতে জিহাদ

(এখন জিহাদ শব্দটা বিকৃত করে উপস্থাপন করা হচ্ছে আমাদের দেশে। তাই জিহাদ নিয়ে আমার এই লেখা। লেখাতে কিছু বাদ পড়লে আমাকে জানাবেন। সেটা যোগ করব ইনশাল্লাহ। ভাল লাগলেঅন্যদের সাথে শেয়ার করতেপারেন। মুসলমানদের জিহাদ সম্বন্ধে পূর্ণাংগ একটা ধারণা থাকা দরকার)
ইসলাম চির শান্তির ধর্ম। ইসলাম চায় মানুষের মাঝে পরস্পর বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক স্থাপিত হোক। তারা দুনিয়ায় সুখে শান্তিতে থাকুক। ফিতনা ফাসাদ দাংগা হাংগামা মানুষকে কখনো কল্যাণ দিতেপারেনা। মানুষের জীবন চলার পথকে সুন্দর ও সুশৃংখল করার জন্য ইসলাম তাদেরকে দিয়েছে বিভিন্ন দিক নির্দেশনা। নিশ্চিত করেছে তাদের যথাযথ স্বাধীনতা। আল্লাহ তায়ালা মানুষের উপর বিভিন্ন ধরণের বিধি-বিধানপালনের বাধ্যবাধকতা আরোপ করেছেন। যেমন-নামাজ, রোজা,যাকাত, হজ্জ ইত্যাদি। সেগুলো যেমন একেকটি ফরজ তথা অত্যাবশ্যকীয় ইবাদাত, তেমনি জিহাদও একটি ফরজ বা আবশ্যক বিধান। মহাগ্রন্থ আল-কুরআনের বিভিন্ন আয়াতএবং রাসুল (সাঃ) এর বিভিন্ন হাদীসে জিহাদের নির্দেশ এসেছে। মহাগ্রন্থ আল-কুরআনে জিহাদের আবশ্যকতা সম্পর্কে বলা হয়েছে-
كُتِبَ عَلَيْكُمُ الْقِتَالُ وَهُوَ كُرْهٌ لَكُمْ وَعَسَى أَنْ تَكْرَهُوا شَيْئًا وَهُوَ خَيْرٌ لَكُمْ وَعَسَى أَنْ تُحِبُّوا شَيْئًا وَهُوَ شَرٌّ لَكُمْ وَاللَّهُ يَعْلَمُ وَأَنْتُمْ لَا تَعْلَمُونَ (216)
অর্থাৎ, তোমাদেরকে যুদ্ধ করার হুকুম দেয়া হয়েছে এবং অথচ তা তোমাদের কাছে অপছন্দনীয়। হতে পারে তোমরা এমন কিছুকে অপছন্দ কর যা আসলে তোমাদের জন্য কল্যাণকর। আবার এমনও হতে পারে কোন জিনিসকে তোমরা পছন্দ করো অথচ, তা তোমাদেরজন্য অকল্যাণকর। আল্লাহ সবকিছু জানেন,আর তোমরা জানো না। (সুরা বাকারা: ২১৬)

অন্য আয়াতে এসেছে:
أُذِنَ لِلَّذِينَ يُقَاتَلُونَ بِأَنَّهُمْ ظُلِمُوا وَإِنَّ اللَّهَ عَلَى نَصْرِهِمْ لَقَدِيرٌ (39) الَّذِينَ أُخْرِجُوا مِنْ دِيَارِهِمْ بِغَيْرِ حَقٍّ إِلَّا أَنْ يَقُولُوا رَبُّنَا اللَّهُ وَلَوْلَا دَفْعُ اللَّهِ النَّاسَ بَعْضَهُمْ بِبَعْضٍ لَهُدِّمَتْ صَوَامِعُ وَبِيَعٌ وَصَلَوَاتٌ وَمَسَاجِدُ يُذْكَرُ فِيهَا اسْمُ اللَّهِ كَثِيرًا وَلَيَنْصُرَنَّ اللَّهُمَنْ يَنْصُرُهُ إِنَّ اللَّهَ لَقَوِيٌّ عَزِيزٌ (40)
অর্থাৎ, যুদ্ধের অনুমতি দেয়া হলো তাদেরকে যাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করা হচ্ছে,কেননা তারা মজলুম এবং আল্লাহ তায়ালা অবশ্যই তাদেরকে সাহায্য করার ক্ষমতা রাখেন। তাদেরকে নিজেদের ঘরবাড়ি থেকে অন্যায়ভাবে বের করেদেয়া হয়েছে শুধুমাত্র এঅপরাধে যে, তারা বলেছিল,“আল্লাহ আমাদের রব।” যদি আল্লাহ তায়ালা লোকদেরকে একের মাধ্যমে অন্যকে প্রতিহত করার ব্যবস্থা না করতেন,তাহলে যেখানে আল্লাহর নাম বেশী করে উচ্চারণ করা হয় সেসব আশ্রম,গীর্জা,ইবাদাতখানা ও মসজিদ ধ্বংস করে ফেলা হত। আল্লাহ তায়ালা নিশ্চয়ই তাদেরকে সাহায্য করবেন যারা তাঁকেসাহায্য করবে। আল্লাহ তায়ালা বড়ই শক্তিশালী ওপরাক্রান্ত। (সুরা হজ্জ: ৩৯-৪০)
কিন্তু, অত্যন্ত আশ্চর্যের বিষয় হল-জিহাদনামক পবিত্র শব্দটিকে এখনকলঙ্কৃত করে ফেলা হচ্ছে। কুরআন শরীফের বহু স্থানে এ শব্দটি এসেছে। অথচ, এখন একে কলঙ্কৃত করে এর দ্বারা সন্ত্রাসকে বুঝানো হচ্ছে। বর্তমানে “জিহাদ” শব্দটি মানুষের নিকট আতংকজনক হিসেবে রূপ ধারণ করেছে। এমনভাবে এটাকে তুলে ধরা হয়-যে, জিহাদ মানেই যেন সন্ত্রাসকিংবা অস্ত্রবাজি ইত্যাদি। অথচ, ইসলাম সন্ত্রাসকে কঠোরভাষায় ঘৃণা করেছে। সন্ত্রাসীর জন্য গুরুতর শাস্তিও ইসলাম নির্ধারণ করে দিয়েছে। হয়তবা, ইসলাম বিদ্বেষীরা মুসলমানদেরকেবিভ্রান্ত করতে এ পথকে বেছে নিয়েছে। একে তারা ইসলামের বিরুদ্ধে মোক্ষম অস্ত্র হিসেবে গ্রহণ করে নিয়েছে।
আসুন! আমরা জিহাদ সম্বন্ধে জেনে নিই। ইসলামকি আসলেই যুদ্ধ করতে বলেছে? নাকি শান্তির ধর্মসেটা এখান থেকেই স্পষ্ট হবে ইনশাল্লাহ। এ ছাড়া জিহাদ সম্বন্ধে আমাদের মাঝে পরিস্কার একটা ধারণার সৃষ্টি হবে ইনশাল্লাহ। আসুন! শুরু করা যাক।
জিহাদের সংজ্ঞা:
আভিধানিক অর্থঃ
জিহাদ আরবী শব্দ। এর আভিধানিক অর্থ হল-
১. কোন বিষয়ের চুড়ান্ত সাফল্যে পৌছানোর লক্ষ্যে কথা ও কাজ দ্বারা প্রাণান্তকর প্রচেষ্টা চালানো।

জবাব: ইসলামের দৃষ্টিতে জিহাদ

২. কষ্ট স্বীকার করা।
৩. শত্রুকে প্রতিরোধ করতে সাধ্যমত চেষ্টা করা। (তাজুল উরুস,কামুসুল ফিকহী)
জিহাদের পারিভাষিক অর্থঃ
বুখারী শরীফের বিখ্যাত ব্যাখ্যাতা আল্লামা ইবনে হাজার আসকালানী (রহঃ) বলেন:
بَذْل الْجَهْد فِي قِتَال الْكُفَّار ، وَيُطْلَق أَيْضًا عَلَى مُجَاهَدَة النَّفْس وَالشَّيْطَان وَالْفُسَّاق . فَأَمَّا مُجَاهَدَة النَّفْس فَعَلَى تَعَلُّم أُمُور الدِّين ثُمَّ عَلَى الْعَمَل بِهَا ثُمَّ عَلَى تَعْلِيمهَا ، وَأَمَّا مُجَاهَدَة الشَّيْطَان فَعَلَى دَفْع مَا يَأْتِي بِهِ مِنْ الشُّبُهَات وَمَا يُزَيِّنهُ مِنْ الشَّهَوَات ، وَأَمَّا مُجَاهَدَة الْكُفَّار فَتَقَع بِالْيَدِ وَالْمَال وَاللِّسَان وَالْقَلْب ، وَأَمَّا مُجَاهَدَة الْفُسَّاق فَبِالْيَدِ ثُمَّ اللِّسَان ثُمَّ الْقَلْب
অর্থাৎ, কাফেরদের সাথে সংগ্রাম করতে গিয়ে শক্তিক্ষয় করা। এর (জিহাদ শব্দ) দ্বারা নিজের প্রবৃত্তি, শয়তান এবং দুরাচার সকলের সাথে সংগ্রাম করাকেও বুঝায়।
এখানে প্রবৃত্তির সাথে জিহাদ বলতে দ্বীন শিক্ষাগ্রহণ করা, শিক্ষাদান করা ও নিজের জীবনে তা বাস্তবায়ন করা, শয়তানের সাথে সংগ্রাম বলতে তার আনীত সংশয় ও অযাচিত লোভ লালসা প্রতিরোধ করাকে বুঝায়। আর কাফেরের সাথে জিহাদ হাত (শক্তি প্রয়োগ), সম্পদ, কথা কিংবা অন্তর যেকোনটার মাধ্যমেই হতে পারে। এছাড়া দুরাচারীদের সাথে জিহাদ হাত দ্বারা(শক্তি প্রয়োগ) অতঃপর জবান তারপর অন্তর দ্বারা হতে পারে। (ফাতহুল বারী: জিহাদ ও সিয়ার অধ্যায়)
ইমাম জুরজানী (রহঃ) বলেন: জিহাদ হল-সত্য দ্বীন তথা ইসলামের দিকে মানুষকে আহবান করা। (আত-তা’রীফাত)
আল্লামা কাসানী (রহঃ) বলেন: আল্লাহর রাস্তায় জিহাদের অর্থ হল- প্রচেষ্টা ও শক্তি ব্যয় করা কিংবা কোন কাজে সফল হওয়ার জন্য প্রাণান্তকর চেষ্টা করা। ইসলামী শরীয়তের পরিভাষায় মুখের কথা, সম্পদ ও জীবন ইত্যাদি
ক্ষয় করে সফলতার মানদন্ডে পৌছার জন্য প্রাণান্তকর প্রচেষ্টা করার নামই জিহাদ। (আল বাদায়েউস সানায়ে)
এখন জিহাদ শব্দটা বিকৃত করে উপস্থাপন করা হচ্ছে আমাদের দেশে। তাই জিহাদ নিয়ে আমার এই লেখা। লেখাতে কিছু বাদ পড়লে আমাকে জানাবেন। সেটা যোগ করব ইনশাল্লাহ। ভাল লাগলেঅন্যদের সাথে শেয়ার করতেপারেন। মুসলমানদের জিহাদ সম্বন্ধে পূর্ণাংগ একটা ধারণা থাকা দরকার)

জবাব: ইসলামের দৃষ্টিতে জিহাদ

দারুন টপিক ।এমনটিই আশা করি আলোর নিশানের সদস্যদের কাছে ।

ফোরামে আছি ।

জবাব: ইসলামের দৃষ্টিতে জিহাদ

সুন্দর লেখা উপহার দেবার জন্য ধন্যবাদ। আশা করি নিয়মিত হবেন।

আপনার আমন্ত্রণ রইল আমাদেরে এলাকায় মন্তব্য করা ও কিছু লিখার জন্য চলনবিল

Share

জবাব: ইসলামের দৃষ্টিতে জিহাদ

بسم الله الرحمن الرحيم

আসসালামুআলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু ,

আলহামদুলিল্লাহ আল্লাহ্*পাকের মেহেরবানীতে বাব-উল-ইসলাম ফোরামের রেজিষ্ট্রেশন ১০ দিনের জন্য খোলা হয়েছে।
বাংলায় রেজিষ্ট্রেশন করতে এইখানে ক্লিক করুন>>https://bab-ul-islam.net/register.ph...d=5&styleid=22

আর মাত্র ৫ দিন পরেই রেজিষ্ট্রেশন প্রক্রিয়া বন্ধ হয়ে যাবে!!!

তাই যত দ্রুত সম্ভব রেজিষ্ট্রেশন করে নিন এবং অন্যান্য বন্ধুদেরকে রেজিষ্ট্রেশন করে নিতে বলুন।

আল্লাহ্* আপনাদের সকলকে উত্তম বদলা দান করুন। আমিন।

Assalamu-alaikum Wa Rah..Wa Barak..!!! ভাই একটা khub e informative site..
jodi sotter sondhan koren tahole eai website visit korun..না korle miss korben..
ekjon muslim ভাই hisebe আমার kortobbo sottoke prochar kora..

BAB-UL-ISLAM- BANGLA BIVAG
-----------------------------
https://bab-ul-islam.net/forumdisplay.php?f=66

Link visit a somossha holey..follow the instruction:

1st click: I Understand the Risks
2nd Click: Add Exception Button (Same Page)
3rd Click: Confirm Security Exception Button (New Page)

Zajakallahu Khairan