টপিক: কোরবানীর ইতিহাস ও মাসয়ালাহ্

কোরবানীর ইতিহাস
আল্লাহর নবী হযরত ইবরাহীন (আ)।আল্লাহ তা`আলা তাঁেক অনেকবার পরীক্ষা করেছেন।সকল পরীক্ষায় তিনি উর্ত্তীন্ন হয়েছেন।এবার আরো এক
আগ্নি পরীক্ষায় সম্মুখীনহলেন।এক রাতে দেখলেন আল্লাহ তাকে ইঙ্গিত আদেশ করছেন পুত্র ইসমাইলকে কুরবানী করোেত।বৃদ্ধ বয়সে ইসমাইল অপেক্ষা দুনিয়াতে অধিকতর প্রিয় কি হতে পারে?শেষ পর্যন্ত সিদ্ধান্তে পৌছলেন আল্লাহ যাতে খুশি হন তা ইকরবেন।
তখন তিনি পুত্র ইসমাইলকে বলেন -
েহ বৎস!আমি স্বপ্নে দেখেছি আমি তোমাকে যবাই করছি।এখন তোমার অভিমত কি বল।ইসমাইল বলল হে আমারআব্বা!আপনি যা আদিষ্ট হয়েছেন তাই করুন।আল্লাহ ইচ্ছা করলে আপনি আমাকে ধৈর্যশীলদের মাঝে পাবেন।
আল্লাহর আদেশ মত ইসমাইলের গলায় ছুরি চালালেন।আল্লাহ তা`অালা খুশি হলেন।তিনি আল্লাহর পরীক্ষায় উর্ত্তীন্ন হরেন।একটি দুম্বা কুরবানী হল।ইনমাঈল বেঁচেগেলেন।
ত্যাগের জয় হল।আল্লাহ তা`আলা খুশি হলেন এবং প্রত্যেক বছরের (আরবি/হিজরত) ১০যিলহজ হালাল পশু যবাই করে একভাগ নিজে,এক ভাগ গরীবদের এবং একভাগ আত্নীয়দের দেওয়ার জন্য আদেশ করেছেন।
মাসয়ালাহ্
১.যিলহজ মাসের ১০ তারিখ ফজর হতে ১২ তারিখ সন্ধ্যাপর্যন্ত সময়ের মধ্যে কেউ সাহিবে নিসাব হয়,তবে তার উপর কোরবানী করা ওয়াজিব।মুসাফিরের উপর কোরবানী ওয়াজিব নয়।
২.যিলহজ মাসের ১০,১১,১২ তারিখে কোরবানী করা যায়।তবে ১ম দিন সবার্পেক্ষা উত্তম।
৩.ঈদুল আযহার সালাতের পূর্বে কোরবানী করা সঠিক নয়।সালাতের পর করা সঠিক।
৪.ছাগল,ভেড়া,দুম্বা,গরু,মহিষ,উট ইত্যাদি গৃহপালিত পশু দ্বারা কোরবানী করতে হয়।গরু, মহিষ এবং উটে এক হতে সাতজন পর্যন্তশরীক হওয়া যায়।
৫.ছাগলের বয় কমপক্ষে একবছর হতে হবে।গরু ও মহিসেল ২ বছর,উটের বয়স ৫ বছর বয়সের হতে হবেভদুম্বা ও ভেড়ার হুকুম ছাগলের মত।তবে ছয় মাসের বেশি বয়সের দুম্বার বাচ্চা যদি এরূপ মোটা তাজা হয় যে,কয়েকগুলো একসাথে ছেড়ে দিলে চেনা যায় না,তবে সেরূপ জায়েয।কিন্তু ছাগলের বাচ্চা এরূপ মোটাতাজা হলেও একবছরের নিচে বয়স হলে কোরবানী করা জায়েয না
৬.কোরবানীর গোশত সাধারণত তিন ভাগে ভাগ করাহয়,১ ভাগ নিজের,১ ভাগ গরীবদের আর ১ ভাগ আত্নীয়স্বজনদের।
আমরা কোরবানীর সময় একাগ্রতার সাথে উত্তম পশু যবাই করব।তাতে আমরা অনেক নেকী পাব।পরস্পরের আন্তরিকতা বাড়বে।হৃদ্যতাপূর্ণ পরিবেশ সৃষ্টি হবে।
প্রথম আলো ব্লগের ব্লগার ও কমর্রত সকল ভাই ও বোন এবং মডারেটর ভাই কে আমার পক্ষ থেকে ঈদ মোবারক ।

সূত্রঃ প্রথম আলো

ফোরামে আছি ।

Share

জবাব: কোরবানীর ইতিহাস ও মাসয়ালাহ্

শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ ।