Share

টপিক: জুম্মার দিনে করণীয়

আজ জুম্মাবার। রাসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন-“তোমরা এ দিনে আমার প্রতি বেশী পরিমানে দরুদ শরীফ পাঠ করো। এ দরুদ শরীফে ফেরেস্তাগন শরীক হয় এবং এ দরুদ শরীফআমার কাছে পেশ করা হয়।’’( মেশকাত শরীফ)দরুদ মূলত একটি ফার্সী শব্দ। আরবী ভাষায় দরুদ অর্থ হলসালাত, বাংলায় প্রার্থনা। আল কোরানে আল্লাহ সুভহানাতায়ালা বলেছেন – “ হে ঈমানদারগন! তোমরা রাসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর উপর দরুদ/সালাত পাঠ করো এবং সালাম পাঠাও। [সূরা আহযাবঃ ৫৬ ]’’
হাদিসে বলা হয়েছে প্রতিবার দরুদ শরীফ পড়লে আল্লাহ সুভহানাতায়ালা বান্দার প্রতি ১০ বার রহমত বর্ষণ করেন। (বুখারী, মুসলিম)। হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে মাসউদ রা. থেকে বর্নিত রাসুলুল্লাহ! সাল্লালাহুআলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন- “ কিয়ামতের দিন সে ব্যক্তিই আমার সব চেয়ে নিকটবর্তী হবে, যে আমার উপর বেশী বেশী দরুদ/সালাত পাঠ করে। [তিরমিযী]” দরুদ এর অর্থ এরকম- হে আল্লাহ, মোহাম্মদ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর প্রতি আপনি রহমত বর্ষন করুন। উনার আলোচনা ও নামকে আপনি এই পৃথিবীর সকল আলোচনা ও নামের মাঝে সর্বোচ্চ স্থানে রাখুন।

দেশান্তরী..

জবাব: জুম্মার দিনে করণীয়

শেয়ারের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ ।